কেমন আছো পৃথিবীর সকল ভাই বোনেরা । কে কার ভাই কে কার বোন ! কোথায় যে কে আছে ।

লিখেছেন সেলাপতি ১১ এপ্রিল, ২০১৭, ১০:০৭ সকাল


ভাই-বোনের সম্পর্কটা এই পৃথিবীতে অনিন্দ সুন্দর আর শুভ্রতায় ভরা, এক কাব্যের মালা । পৃতিবীতে আবষ্কিৃত আথবা মানুষের গোচরে আসা সম্পর্ক গুলোর মধ্যে অপ্রতিদ্যন্দি এ মেলবন্ধন । সকালের ঝগড়া শেষে বিকালের মুখবাকানো সন্ধ্যার ভালবাসায় রাতের উজ্জল তারকার আনাগোনা । কেউকাউকে কষ্ট দিলে দাউদাউ করে জলে উঠে মনের ভিতর ।
মনের ভিতর আনছান ভাব লেগে থাকে কি যেন করলে ফুলকি দিয়ে হেসে উঠবে বোনটির...

“হচপচ”

লিখেছেন তরবারী ১১ এপ্রিল, ২০১৭, ০৩:৩৮ রাত

পদ পদবী আর অবস্থা যোগ্যতার মাপকাঠি।
তাতে অযোগ্যরাও যোগ্যতার ডক্টর।
মনে আছে এক জেলা প্রশাসক কবিতার বই লিখেছিলেন।বেশ ভালো কাটতি হয়েছিল।কারণ পদবী আছে।
আবার ফ্রান্সে যারা আছেন তারাও এই বিষয়টা খুব ভালো বুঝে।অশিক্ষিত,অর্ধশিক্ষিত লাঙ্গল টু বিদেশ গুলো ও একেকজন জ্ঞানের অঘোষিত বিশ্ববিদ্যালয়।
আবার এ দিক থেকে মেয়েরাও বেশ উচ্চপদস্থ।কিছু একটা লিখলেই হল।
ফাটিয়ে ফেলছেন,মারাত্মক...

তোমরা যারা জানো নাঃ বাংলা সাল!

লিখেছেন চিলেকোঠার সেপাই ১১ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:৪৬ রাত

আকবরের থিংক ট্যাংকরা সব ধর্ম এক করে দ্বীন ই ইলাহি নামে একটি অভিনব দর্শন তৈরি করে। দ্বীন ই ইলাহির প্রভাব আরও দৃঢ় করতে ইসলামি হিজরি ক্যালেন্ডার সরানোর চিন্তা করেন। সেই চিন্তাধারা থেকে আকবরের আদেশে তার অন্যতম প্রধান উপদেষ্টা বাংলার বিখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী ও চিন্তাবিদ ফতেহউল্লাহ সিরাজি সৌর সন এবং আরবি হিজরী সনের উপর ভিত্তি করে নতুন একটি ক্যালেন্ডার তৈরি করেন। এই ক্যালেন্ডার...

"আলো বিহীন তারকা বনাম যুবক-যুবতী কর্তৃক অন্ধ অনুসরণ"

লিখেছেন রঙ্গিন স্বপ্ন ১১ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:৪১ রাত


আজ প্রথম আলোয় একটি খবর বেরিয়েছে-
সন্তানের দায়িত্ব নেব, অপুর নয়: শাকিব
http://www.prothom-alo.com/…/%E0%A6%B8%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0…
বাহ, নায়ক সাহেব দেখি নারীদের দারুণ সম্মান দিয়ে কথা বলছেন........ বউ বলে ছোট করবে কেন? বরং বলেছে ''তিনি আমার আব্রাহামের মা''
আমি অপুর সঙ্গে কথা বলব না, অপুকে নিয়েও কথা বলব না। তিনি আমার আব্রাহামের মা।
নায়ক ৮ বছর আগে বিয়ে করেছে নায়িকাকে। আজ নায়িকা তা ফাঁস করে দেয়। রাগে ক্ষোভে বলছে ৬ মাস বয়সী...

বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া সম্পর্কের সোনার যুগ! অন্ধের হাতি দর্শন এবং চাটুকারের আহাজারী

লিখেছেন সাইয়েদ ইকরাম শাফী ১০ এপ্রিল, ২০১৭, ১১:২৩ রাত


বেশ কিছুদিন আওয়ামী ফ্যাসিবাদী শাসনের গুনগান গেয়ে তিনি এখন যুক্তরাজ্যের লন্ডনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস মিনিস্টার হয়েছেন। তিনি একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে সরকার ও হাসিনার ইন্ডিয়া সফর নিয়ে বেশ গুণগান গেয়েছেন। নুন খেলে গুণ গাইতে হবে-এটাই স্বাভাবিক। নিজ দলের গুণগান গাইবেন সেটাও স্বাভাবিক। কিন্তু নিজ দলের গুণগান গাইতে গিয়ে অন্যদের বিরুদ্ধে যাচ্ছে তাই মিথ্যাচার ও আহাজারী...

প্রধানমন্ত্রীর সফরনামা

লিখেছেন কাব্যগাথা ১০ এপ্রিল, ২০১৭, ০৭:১১ সন্ধ্যা

ঢাক ঢোল বাজিয়ে সফরে ছিল মহা আয়োজন,
সফরে তিস্তা চুক্তি ছিল দেশের খুবই প্রয়োজন |
হলো সফরে অসংখ্য চুক্তি আর স্বারক স্বাক্ষর,
তিস্তা নিয়ে কোথাও কিছু নেই, নেই একটি অক্ষর |
সেনাবাহিনী নিয়ে চুক্তির দাবি ছিলোনা দেশের পক্ষে,
তাতেও দাদাদের হাত থেকে পাওয়াগেলো কি রক্ষে?
যে চুক্তি দাবি করেনি আমাদের সেনাবাহিনী দরকার,

বর্তমান সরকারের পথ চলা

লিখেছেন ইগলের চোখ ১০ এপ্রিল, ২০১৭, ০৪:০১ বিকাল


বর্তমান সরকার একের পর এক অসম্ভবকে সম্ভব করে দেশের জন্য, মানুষের জন্য সাফল্য নিয়ে আসছেন। হাজারও বাধার বিন্দাচল টপাটপ টপকে একের পর এক জিতে চলেছেন শত্রুর দেয়া কঠিন চ্যালেঞ্জ। দেশকে নিয়ে গেছেন এক অনন্য উচ্চতায়। দেশের মানুষের বুকে ভরে দিয়েছেন স্বস্তি, মাথায় পরিয়েছেন বিজয়ের মুকুট। প্রজ্ঞা, মেধা, দূরদর্শিতা, বিচক্ষণতা আর সময়োপযোগী সঠিক সিদ্ধান্তের কারণে সরকার একের পর এক সৃষ্টি...

“একটু জল দিন দিদি”

লিখেছেন শাহাবউদ্দিন আহমেদ ১০ এপ্রিল, ২০১৭, ১০:২৩ সকাল


দিদি বলেন, শুখা মওসুমে জল পাবো কোথায়?
এ সময় কি জল থাকে তিস্তায়?
তোমাদেরে জল দিয়ে বাপু আমরা মরিব তেষ্টায়!
সে কি করে হয় আমিতো ভেবে পাই না কোন চেষ্টায়।
পানের জল রবে’না, চাষের জলে পড়বে টান,
রাজ্যের চাষীদের উর্বরা জমি সব হবে খান-খান!

মহাযুদ্ধের পথে ------

লিখেছেন পটাশিয়াম নাইট্রেট ১০ এপ্রিল, ২০১৭, ০৭:১৭ সকাল

সিরিয়ার বিমান বন্দরে যুক্তরাষ্ট্রের ৫৯ টি টোমাহক মিসাঈল নিক্ষেপের পর বিশ্বজুড়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। যুদ্ধের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। আমেরিকা বলছে, বাশার-আল আসাদের সাধারণ জনগণের উপর সারিণ গ্যাস ব্যাবহার আমেরিকার দেয়া সীমানা অতিক্রম করেছে। পাল্টা পদক্ষেপে রাশিয়া-ইরান ঘোষণা করেছে এ ধরণের হামলা আর হলে তা হবে রাশিয়া-ইরানের আঁকা রেড-লাইনের লঙ্ঘন। আর তাহলে হামলার...

প্রতিরক্ষা চুক্তি

লিখেছেন তরবারী ১০ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০৭ রাত

দাদার টানে দিদি ছুটেছে
ইলিশ বালিশ নিয়ে
ইলিশ খেয়ে চুক্তি হবে
বালিশে পড়বে ঘুমিয়ে।
ফারাক্কা তে মরু হয়েছে
এবার কি আর বুঝতে!
জ্ঞানীদের জন্য ইশারাই কাফি

বেকার ভাবনা

লিখেছেন বাকপ্রবাস ০৯ এপ্রিল, ২০১৭, ০৬:০২ সন্ধ্যা

বেকার আ‌মি তাই দুই পয়সার নাই দাম
যে যাই বলুক স‌য়ে যে‌তে হয় গা‌য়ের চাম।
হা‌সি, ঠাট্টা, খুনসু‌টি যে যা করুক, থাক
বেকার মা‌নে থাক‌তে নেই তার রাগ।
জ্ঞান, বু‌দ্ধি, যার য‌তো সব দেয়া যায় তা‌কে
বেকার ব‌লেই সই‌তে হ‌বে কথার ঝা‌লের ঘা‌কে।
বেকার আ‌মি, দু‌দিন বাদে একটা কিছু হ‌বে

ফ্ল্যাটে বসবাসের সুযোগ পাবে ১ হাজার ১৪৮টি পরিচ্ছন্নতাকর্মী পরিবার

লিখেছেন ইগলের চোখ ০৯ এপ্রিল, ২০১৭, ০৪:৪৪ বিকাল

এবার ফ্ল্যাটে বসবাসের সুযোগ পেতে যাচ্ছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ১ হাজার ১৪৮টি পরিচ্ছন্নতাকর্মী পরিবার। তাদের আবাসনে ১০তলা বিশিষ্ট ১৩টি ভবন নির্মাণ করছে ডিএসসিসি। ‘ডিএসসিসি’র পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিবাস নির্মাণ’ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ভবনগুলোর প্রতিটি ইউনিটে একটি করে ফ্ল্যাট পাবেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। প্রত্যেক ফ্ল্যাটে দু’টি বেডরুম, একটি কিচেন,...

টাউট বাটপাড়ের স্বরূপ।

লিখেছেন হায়দার মহিউদ্দীন ০৯ এপ্রিল, ২০১৭, ০১:১৯ দুপুর

বাটপাড় চার বর্ণের একটি শব্দ। সমাজে বসবাসরত একটা শ্রেণীর মানুষের চরিত্রগত নাম বাটপাড়। এরা সমাজে বসবাসরত এমন একটা শ্রেনীর ব্যক্তির চরিত্রের নাম যাদের মধ্যে কুপ্রবৃত্তির তাড়না প্রচন্ড, সুপ্রবৃত্তি নেই বললেই চলে।এদের হৃদয়ে থাকে কপটতা। এরা অশুভ চরিত্র । চিন্তায় এরা ক্ষতিকর ,কর্মে অকল্যাণকর এরা সচরাচর শিক্ষিত হয় না কিন্তু শিক্ষা লাভ করলে ধূর্ত হয়ে উঠে ।এরা যখন কথা বলে তখন...

তসবিহ গুনা সুন্নত কিনা এ সম্পর্কে সহি ও জইফ কোন হাদীস আছে কিনা?

লিখেছেন মদীনার আলো ০৯ এপ্রিল, ২০১৭, ১০:৫১ সকাল

উত্তর: যিকির দু’ভাবে আদায় করা যায় : বেশি বেশি পাঠ করে এবং নির্দিষ্ট সংখ্যক পাঠ করে। নির্দিষ্ট সংখ্যক যিকেরের জন্য গণনার প্রয়োজন। কিন্তু আমরা দেখি যে, কোনো কোনো সাহাবী ও পরবর্তী ইমাম যিকির গণনা করতে নিষেধ করেছেন। তারা বলতেন, আল্লাহই তো গণনা করছেন, তুমি কেন গণনা করবে। তুমি কি আল্লাহর কাছে যেয়ে গুণে হিসেব বুঝে নেবে?
ইমাম আবু হানীফা (রহ) ও হানাফী ইমামগণ যিকির ও তাসবীহ-তাহলীল...

কয়েকটি বর্জনীয় দৃশ্য ।

লিখেছেন Ruman ০৯ এপ্রিল, ২০১৭, ০৮:৪০ সকাল

কিছু বিষয় আছে, যা নিজেরটা নিজে দেখা যায় না বা অনুভব করা যায় না। আবার কিছু বিষয় আছে, যা নিজে একটু খেয়াল করলেই আমরা বুঝতে পারি, কিন্তু অনেক সময় ওদিকে নযর যায় না।
এক.
আমি কারো সাথে সামনা-সামনি কথা বলছি তার অর্থ হল, সে আমার দিকে তাকিয়ে আছে। এমন সময় যদি হাই ওঠে আর আমি তা প্রতিহত না করি বা মুখে হাত না দিই তাহলে কেমন দৃশ্য হয়?
সেটা বোঝার জন্য হাই ওঠা অবস্থায় মুখে হাত না দিয়ে...